Ayurvedic

আয়ুর্বেদিক পণ্য

সব ফেস প্যাকের জন্য -

১. ব্যবহারের সময় ম্যাসাজ করতে হবে ওপরের দিকে ।এতে ঝুলে যাওয়া ত্বক ধীরে ধীরে আগের মত হবে ।

২. অতিরিক্ত শুকানো যাবে না এতে ত্বকে বলিরেখা পরবে। হাল্কা ভেজা অবস্থায় তুলে ফেলতে হবে ।

৩. এলার্জির প্রবনতা থাকলে না ব্যবহার করা ভালো ।

৪.যেহেতু এগুলো গুঁড়া পন্য তাই ব্যবহারের পর যাদের শুস্ক ত্বক তাদের ত্বক টানতে পারে। তাই ভালো মানের লোশন ব্যবহার করতে হবে।

৫.ফেস প্যাক গুলো সকল প্রকার ত্বকের জন্য ।

কেশ রঙ্গন -

চুলকে কেশ রঙ্গন প্রকৃতিক রঙ্গ দেয়।

স্ক্যাল্পকে স্বাস্থ্যকর করে, কেশ রঙ্গন তার কুলিং এবং এন্টি-মিক্রোলিয়াল উপাদান দ্বারা স্ক্যাল্পের স্বাস্থ্য ভালো রাখে। স্ক্যাল্প ঠাণ্ডা রাখতে সহায়তা করে। কেশ রঙ্গন স্ক্যাল্পের খুশকী দূর করতে অত্যন্ত কার্যকর।

চুলের কন্ডিশনার হিসেবে –

কেশ রঙ্গন স্ক্যাল্পে জমে থাকা ময়লা দূর করে। কেশ রঙ্গন প্যাক ব্যবহারের ফলে চুল মসৃণ এবং সিল্কি হয়। কেশ রঙ্গন চুলের ময়েশ্চারাইজার হিসেবেও কাজ করে। এটি চুলের গোড়া শক্ত করে ও চুল ভেঙে যাওয়া বন্ধ করে।

কেশ রঙ্গন তৈলাক্ত চুলের জন্য খুবই উপযোগী একটি উপাদান। এটি চুলের অতিরিক্ত তেল নিয়ন্ত্রণ করে। এটি স্ক্যাল্পের পিএইচ এর প্রাকৃতিক অ্যাসিড-ক্ষারীয় স্তর ব্যাল্নস করে।

চুলের বৃদ্ধি এবং চুল পড়া রোধ করে।

স্ক্যাল্প গরম থাকলে চুলের গোড়া নরম হয়ে চুল পড়া বেড়ে যায়। কেশ রঙ্গন ক্যাল্পকে ঠাণ্ডা রাখতে সাহায্য করে ।

কেশ বিলাশ -

আমাদের চুলকে বাহির থেকে পুষ্টি যোগায়। আঁকা বাঁকা, নিঃস্বপ্রান চুল, রিবনডিং চুল, ক্যামিকেল রঙ করা চুলকে প্রানবন্ত করে তোলে।

তৈলাক্ত এবং রূক্ষ উভয় চুলেই ব্যবহারের উপযোগি । তবে রূক্ষ চুলে অবশ্যই ভালো মানের তেল ব্যবহার করে মিশ্রণ ব্যবহার করতে হবে।

কেশ রঙ্গনের মতো এটি ব্যবহারে চুলে রঙ আসবে না ।

সতেজ মন্ত্র -

১. যাদের হাল্কা মেশতা, নতুন মেশতা, মেশতার জন্য তিল কারা ব্যবহারে মেশতা হাল্কা হবে, তিল হাল্কা হবে। তবে জন্মগত তিল এবং গাড়ো মেশতা যাবে না, ডাক্তারের পরামর্শ আবশ্যক।

২.অতিরিক্ত তৈলাক্ত ত্বকের তৈলাক্ত প্রবনতা কমায়, পোরস্ মিনিমাইজ করে, ব্রনের দাগ এবং ব্রনের প্রবনতা কমাবে।

তবে এলার্জি এবং ব্রনের মধ্যে পার্থক্য বুঝতে হবে ।

রূপ ছন্দ -

কোকো বীনস্ আছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট যা ত্বকে লাবন্য অথবা যৌবন দীর্ঘ সময় ধরে রাখতে সাহায্য করে। দীর্ঘ সময় ধরে ত্বকের যত্ন থেকে বিরত থাকলে এটা ব্যবহারে দ্রুত ফলাফল পাওয়া যায়। পার্লারে যেয়ে চকলেট ফ্যাসিয়াল এখন বাসায়ই সম্ভব। ত্বকের চাকচিক্য বজায় রাখে ।

লাবন্য লতা -

১. হারিয়ে যাওয়া ত্বকের লাবন্য ও উজ্জ্বলতা ফিরে পেতে সাহায্য করে, ত্বকের কালো অংশ এবং যেসকল স্থানে ত্বকের রং কালচে সে সকল স্থানে ম্যাসাজ করতে হবে নিয়মিত ।

চুলের সকল প্যাকের জন্য করনীয়-

কখনোই একদম শক্ত করে শুকানো যাবে না সে ক্ষেত্রে ব্যবহারের সময় চুল ছিঁড়তে পারে। তাই এই কারনে চুল পড়লে এটাকে অস্বাভাবিক চুল পরছে বললে চলবে না। হাল্কা ভেজা অবস্থায় স্যাম্পু করে ফেলতে হবে ।

চুলের ও ত্বকের জন্য নিন্মক্ত পণ্য গুলা আমরা
পরামর্শ দিয়ে থাকিঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *