Ayurvedic

আয়ুর্বেদিক বিউটি প্রোডাক্ট টিপস্ ১০০% গ্যারান্টি

আয়ুর্বেদিক বিউটি প্রোডাক্ট

এই মুহূর্তে আপনার বিউটি প্রোডাক্ট স্টকগুলি নিয়ে খুব খুশি নন? আপনার ত্বক এবং চুলের জন্য ভালো গ্যারান্টিযুক্ত পণ্য খুঁজছেন? তাহলে কেমিক্যালযুক্ত পণ্য ত্যাগ করে আজই আয়ুর্বেদিক বিউটি প্রোডাক্ট নিয়ে নিন।

এসব আয়ুর্বেদিক পণ্যে আপনি আপনার ত্বক, চুল এবং শরীরের যত্ন নেওয়ার জন্য পুষ্টিকর বিষয়গুলো পেয়ে যাবেন, তাও আবার কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই। নিচের থেকে ক্লিনসিক মাস্ক, আল্ট্রা হাইড্রেটিং ময়েশ্চারিয়ার এবং চুলের বৃদ্ধির জন্য তেল ছাড়াও আপনার সৌন্দর্য বর্ধনের প্রাকৃতিক পণ্যগুলো নিয়ে নিজেকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলতে পারেন।

ড্রেসআপ থেকে নিয়ে নিতে পারেন আপনার পছন্দের কার্যকর কিছু আয়ুর্বেদিক পণ্য:

১. লাবণ্য লতা (Labonno Lota)

এটি ত্বক উজ্জ্বল ও মসৃণ করবে, ত্বকের বলিরেখা ও দাগ দূর করতে প্রচুর কার্যকার। ফেস প্যাকটি নিয়মিত ব্যবহারে ত্বক উজ্জ্বল এবং ফর্সা হয়ে উঠবে। সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে তৈরি এবং সকল ধরনের ত্বকের জন্য প্রযোজ্য।

ব্যবহারবিধি

১) পরিমাণমতো লাবন্য লতা পাউডার পানির সাথে গুলিয়ে ভারী পেস্ট তৈরি করুন এবং পুরু করে ত্বকে মেখে নিন।

২) ৫-১০ মিনিট অথবা পেস্ট শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করুন।

৩) পেস্ট শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ত্বক ভালোভাবে পরিষ্কার করে ধুয়ে ফেলুন।

আয়ুর্বেদিক উপকরণ

লিকারিস পাউডার, ফেনিগ্রিক গুঁড়া, ক্যাফে ডরিয়া, সাইট্রাস এক্স সিনেসিস এবং আরও কিছু দুর্লভ প্রাকৃতিক উপকরণ।

এটি চুলের ভাঙ্গন থেকে রক্ষা করে, চুলের গঠনকে পুনঃবিন্যাস করে ও চুলের উজ্জ্বলতা বাড়ায়। এছাড়াও চুলের কালারিং, রিবন্ডিং, স্ট্রেটনিং ইত্যাদি কারণে ক্ষতিগ্রস্থ চুলকে স্বাস্থ্যোজ্জ্বল করে তোলে। এটি একটি সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে তৈরি, চুলের পুষ্টি নিশ্চিত কারক মিশ্রণ।

ব্যবহারবিধি

১) কেশ বিলাশ ব্যবহারের পূর্বে অবশ্যই চুলে তেল ব্যবহার করতে হবে (তেল অবশ্যই কেমিকেল ফ্রি হতে হবে)।

২) পরিমাণমত প্যাক, একটি ডিম ও পরিমাণমত পানি মিশিয়ে ঘন মিশ্রণ তৈরি করে নিন।

৩) চুলে শিথি করে ভাগে ভাগে মিশ্রণটি পরিমাণমত ব্যবহার করুন।

৪) মিশ্রণ পুরোপুরি শুকিয়ে গেলে শ্যাম্পু দিয়ে চুল ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন।

আয়ুর্বেদিক উপকরণ

আক্সিয়া কনসিন্না, হিবিস্কাস, ফিলান্থাস এমিবকা, লসোনিয়া ইনারমিস, ট্রাইসোনেলা ফেনিয়াম-গ্রিকাম এবং আরাও কিছু দুর্লভ প্রাকৃতিক উপাদান।

এটি ব্রনের সমস্যা দূরিকরণে সহায়ক। এটি ত্বকের প্রয়োজনীয় কোলাজেন উৎপাদনে সাহায্য করে যা ত্বকের বিভিন্ন ছিদ্র বন্ধে সাহায্য করে। ত্বকেরউজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে। সতেজ মন্ত্রের গুড়া ত্বকের বলিরেখা ও ক্ষত দূর করে।

ব্যবহারবিধি

ব্যবহারের আগে মুখ পানি দিয়ে পরিষ্কার করে নিন। এরপর পরিমাণ মত সতেজ মন্ত্র পানির সাথে মিশিয়ে ভারী পেস্ট তৈরি করে নিয়ে মুখে পুরু করে মেখে নিন। পেস্ট শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। পেস্ট সম্পূর্ণ শুকিয়ে গেলে ত্বক পরিষ্কার করে ধুয়ে ফেলুন। উৎকৃষ্ট কার্যকারীতা পেতে প্রতিদিন ব্যবহার করতে হবে।

আয়ুর্বেদিক উপকরণ

বেনটোনাইট ক্লে, ধানের গুড়ো, রুবিয়া কার্ডিফোলিয়া, সিসার আরিটিনাম ও আরাও কিছু দুর্লভ প্রাকৃতিক উপাদান।

রুপছন্দ যার অন্যতম উপাদান কোকোয়া, এটি প্রচুর পরিমানে এন্টি অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ। এন্টি অক্সিডেন্ট থাকার কারণে কোকোয়া আমাদের ত্বক থেকে বয়সের ছাপ দুর করে। ত্বকের লাবন্য ফিরিয়ে আনে, ত্বককে সজীব করে তোলে। ত্বকের বিভিন্ন দাগ হালকা করে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে। নিয়মিত রুপছন্দ ব্যবহার করলে ত্বক ফর্সা হতে সাহায্য করে।

ব্যবহারবিধি

১) রূপছন্দ পাউডার পানির সাথে গুলিয়ে ভারী পেস্ট তৈরি করতে হবে এবং পুরু করে ত্বকে মেখে নিতে হবে।

২) ৫-১০মিনিট অথবা পেস্ট শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

৩) পেস্ট শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ত্বক পরিষ্কার করে ধুয়ে নিতে হবে।

আয়ুর্বেদিক উপকরণ

মেথি, ক্যাফে ডরিয়া, রুবিয়া কার্ডোফোলিয়া, বেন্টোনেট ক্লে, ভাইটাস ভিনেফেরা গুঁড়াসহ আরও কিছু দুর্লভ প্রাকৃতিক উপকরণ।

কেশ রঙ্গন চুলকে প্রাকৃতিক মেহেদী রঙ দেয়। রুক্ষ এবং নিষ্প্রাণ চুলের গোড়া শক্ত করে, চুল পড়া কমাবে, খুশকি প্রতিরোধ করবে, প্রানবন্ত, কোমল এবং ঝলমলে করে তুলবে।

ব্যবহারবিধি

১) কেশ রঙ্গন ব্যবহারের পূর্বে অবশ্যই চুল ভালো করে পরিষ্কার করে নিতে হবে।

২) পরিমানমত মিশ্রণ পানি দিয়ে গুলে ভারী মিশ্রণ তৈরি করে চুলে শিথি করে ভাগে ভাগে মিশ্রণটি পরিমাণমত ব্যবহার করতে হবে।

৩) মিশ্রণটি শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে শ্যাম্পু করে ফেলতে হবে।

আয়ুর্বেদিক উপকরণ

একাছিয়া কনসিন্না পাউডার, ক্যামেলিয়া সিনেনসিস পাউডার, ফিলানথাস এম্বলিকা পাউডার, সোনিয়া ইনারমিস পাউডার।

চুল পড়া বন্ধ, নতুন চুল গজানো, চুলের রুক্ষতা দূরীকরণ, চুলের আগা ফাটা বন্ধ করে এবং খুস্‌কি সমাধানে একটি কার্যকরী তেল।

ব্যবহারবিধি

১. রাতে ভালো করে মাথায় মেখে সকালে ভালভাবে শ্যাম্পু করে ফেলুন।

২. সপ্তাহে কমপক্ষে তিন দিন ব্যবহার করুন।

আয়ুর্বেদিক উপকরণ

তিলের তেল, কালিজিরার তেল, বৃঙ্গরাজ, আমলকি গোলাপ, মেহেদি পাতা ও দুর্লভ কিছু ঔষধি গাছ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *