Posts

ত্বীন ফলের ১৩০০ গুন

পবিত্র কোরান শরীফের ৯৫ নম্বর সূরায় বরকতী ফল ‘ত্বীন ফল’ এর কথা উল্লেখিত আছে। স্বয়ং মহান আল্লাহতা’লা ত্বীন ফলের শপথ করেছেন। এই ফলকে জান্নাতি ফল ও বলা হয়। ত্বীন ফলের অনেকগুলো গুনের মধ্যে বিশেষ গুন হলো এটির শিকড় থেকে শুরু করে পাতা পর্যন্ত ব্যবহার করা যায়।
এতে ৭১ টিরো বেশি পুষ্টি গুন আছে। ওমেগা ৩, ওমেগা ৬, ম্যাগনেশিয়াম, পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম, আয়রন, কপার,জিঙ্ক, ডায়েট্রি ফাইবার, কার্বোহাইড্রেট, ফসফরাস, থায়ামিন সহ ভিটামিন যেমন – ভিটামিন সি , এ , কে ,বি৬ ইত্যাদি আছে।
এই উপাদান গুলো বিভিন্ন ভাবে আমাদের শরীরের ক্ষমতা বাড়িয়ে রোগ নিয়ন্ত্রণ করে, রোগ প্রতিরোধ ও প্রতিকারে ভূমিকা পালন করে।

আসুন জেনে নেই ত্বীন ফলের কিছু গুনাগুন –
১। ত্বীন ফলে যে কার্বোহাইড্রেট আছে তা আমাদের দেহে মেদ সৃষ্টি করেনা। ফ্যাট একদম নেই বললেই চলে। সুতরাং যারা মেদ বা ওজন বৃদ্ধির ভয়ে কোনো খাবার পেট ভরে খেতে পারেনা তাদের জন্য উপযুক্ত একটি ফল।
২। ডায়াবেটিক রোগীদের সুগার লেভেল নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। ডায়াবেটিক রোগীরা মিষ্টি জাতীয় খাবার খেতে পারেনা। এই ফলের ভেতর মধু আছে, যেটা তাদের মিষ্টি খাদ্যের চাহিদা পূরণ করবে।
৩। ত্বীন ফল কোলেস্টেরল এর মাত্রা কমিয়ে হৃদরোগ এর ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে।
৪। এতে প্রচুর পরিমানে ক্যালসিয়াম ও অন্যানো খনিজ উপাদান থাকার কারণে হাড় এর গঠন মজবুত করে।
৫। থায়ামিন এর অভাব পূরণ করে যার অভাবে দেহে বেরিবেরি রোগ হয়। বেরিবেরি রোগে আক্রান্ত রোগীর পেশী দূর্বল হয়ে যায়।
৬। ওমেগা ৩, ওমেগা ৬ এর অভাবে বিভিন্ন মানসিক রোগ যেমন ডিপ্রেশন, স্মৃতিভ্রংশ সহ ক্যান্সার কোষ তৈরী হওয়ার আশঙ্কা বাড়ায়। ত্বীন ফলে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা ৩, ওমেগা ৬ আছে।
৭। এই ফল মেয়েদের অনিয়মিত মাসিকের সমস্যা সমাধান করে, যে সকল রমণীর দ্রুত গর্ভপাত হয় তাদের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে সাহায্য করে।
৮। ত্বক ও চুল ভালো রাখতে এই ফল প্রতিদিন খেলে উপকার পাওয়া যায়।

এছাড়াও এই ফল উচ্চরক্ত চাপ, শাসকষ্ট, মাথাব্যথা সহ আরো অন্যানো রোগ নিরাময় এ সাহায্য করে।

ইয়াম্মী বাই ড্রেস-আপ এর পণ্য গুলাঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *